অপরাধজেলা সংবাদসারাদেশে

আড়াইহাজারে ছিনতাই করতে গিয়ে এসআইসহ ৪ জন আটক

স্টাফ রির্পোটারঃ নারায়ণগঞ্জ জেলার আড়াইহাজারে ছিনতাই ও অপহরণের চেষ্টাকালে ডেমরা থানার এক উপ পরিদর্শক (এসআই) সহ ৪জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার (৯ মার্চ) রাতে আড়াইহাজারের প্রভাকরদি বাজার এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। এসময় গ্রেফতারকৃত পুলিশের ঐ এসআই এর কাছ থেকে সরকারী পিস্তল, হ্যান্ডকাফসহ ছিনতাইকৃত টাকা উদ্ধার করে আড়াইহাজার থানা পুলিশ।

শুক্রবার (১০ মার্চ) এ ব্যপারে ছিনতাইয়ের শিকার ব্যবসায়ী সজীব(২৫) আড়াইহাজার থানায় মামলা দায়ের করেছেন।

আটককৃতরা হলেন, রাজশাহী জেলার বাগমারা থানার ময়েজ উদ্দিনের ছেলে ও ডেমরা থানার এসআই মোজাম্মেল হক(৩৭), রূপগঞ্জের ভুলতা এলাকার মাসুদ মিয়ার ছেলে আতিকুর রহমান ওরফে সোহেল(২৯), একই এলাকার মনজুর হোসেনের ছেলে হালিম মিয়া(২০) এবং বিজয়(২৬)।

মামলায় উল্লেখ করা হয়, গত বৃহস্পতিবার রাত ১০টার দিকে সজিব ও তার বন্ধু রাসেল মিয়া (২৬) রুপগঞ্জের গাউসিয়া থেকে সিএনজি যোগে নিজ বাড়ী আড়াইহাজারের প্রভাকরদী আসছিলেন। পথিমধ্যে মামলার বাদী সজীব তার মামা সবুজ(৪০) এর সাথে দেখা করতে আড়াইহাজারের প্রভাকরদি বাজার সংলগ্ন আবদুর রউফের ভাঙারীর দোকানের সামনে কাশবনের মাঠে নামেন। সেখানে যাওয়া মাত্রই গ্রেফতারকৃত পুলিশের এসআই মোজাম্মেলসহ ৫জন তাদের ঘিরে ফেলেন। এসময় মোজাম্মেল তার কাছে থাকা পিস্তল বের করে নিজেদের পুলিশের সদস্য বলে পরিচয় দেন এবং সজীব ও তার বন্ধু রাসেলকে হাতকড়া লাগিয়ে দেন। এক পর্যায়ে আসামী মোজাম্মেলের সাথে থাকা ছিনতাইকারী চক্রের সদস্যরা নিজেদেরকে পুলিশের কন্সটেবল বলে পরিচয় দিয়ে বিভিন্ন ভয়ভীতি প্রদর্শন করেন এবং মামলার বাদী সজীবরে কাছে থাকা নগদ ৮২হাজার ৫শ টাকা, মোবাইল ফোন, তার বন্ধু রাসেলের কাছে থাকা ৩৫হাজার টাকা ও মোবাইল ছিনিয়ে নেয়। এক পর্যায়ে আসামিরা তাদেরকে হাতকড়া পরানো অবস্থায় কাশবনের মাঠ থেকে টেনে হিচড়ে সামনের রাস্তায় নিয়ে আসে এবং ধস্তাধস্তি করে একটি সিএনজিতে উঠানোর চেষ্টা করে। এসময় সজীব ও তার বন্ধু রাসেল চিৎকার শুরু করলে কিছু দূরেই টহলরত আড়াইহাজার থানার এএসআই নুরে আলম সঙ্গীয় পুলিশ সদস্যদের নিয়ে এগিয়ে আসেন। সেখানে আসামি মোজাম্মেল নিজেদের ডেমরা থানা পুলিশের সদস্য পরিচয় দিলে এএসআই নুরে আলম তাদের পরিচয়পত্র দেখতে চাইলে আসামি নিজেদের পরিচয়পত্র দেখাতে ব্যর্থ হয়। বিষয়টি ছিনতাই আচ করতে পেরে এএসআই নুরে আলম আড়াইহাজার থানায় খবর দিলে এসআই নাহিদ মাসুমের নেতৃত্বে অপর একপি পুলিশ টিম ঘটনাস্থলে এসে আসামিদের গ্রেফতার করে। এসময় অজ্ঞাত এক আসামী পালিয়ে যায়। আসামিদের কাছ থেকে পুলিশ ৮রাউন্ড গুলি ভর্তি একটি নাইন এমএম পিস্তল (সিরিয়াল নং টি-১০৬৮৮৬৯), এক জোড়া কালো রঙের হ্যান্ডকাফ এবং ছিনতাকৃত টাকার মধ্যে ১০হাজার টাকা উদ্ধার করে। উদ্ধারকৃত টাকা ছিনতাইয়ের বলে আসমিরা প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে স্বিকার করে।

আরও পড়ুন >   গোপালদী পৌর স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থীর বাড়ীতে হালিম শিকদারের হামলার অভিযোগ

এদিকে গ্রেফতারকৃত আসামি মোজাম্মেল হক ঢাকা ডেমরা থানার এসআই বলে নিশ্চিত করেছেন ডেমরা থানার ওসি শফিকুর রহমান। তবে গ্রেফতারকৃত অপর তিন আসামী তার থানার কনস্টেবল নয় বলে জানান তিনি।

আড়াইহাজার থানায় মামলা দায়েরের বিষয়টি স্বীকার করে থানা পুলিশ জানিয়েছে, গ্রেফতারকৃতরা সংঘবদ্ধ ছিনতাইচক্রের সদস্য। ডেমরা থানার এসআই মোজাম্মেল হকও এই চক্রের একজন হোতা। অজ্ঞাত আসামিকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

এই ব্যাপারে আড়াইহাজার থানার (ওসির দায়িত্বে থাকা) তদন্ত সাইফুল ইসলাম সোহাগের মুঠাফোনে একাধিকবার কল দিলেও তিনি রিসিভ করেনি।

উপ পরিদর্শক (এস আই) নাহিদ মাসুম ঘটনা নিশ্চিত করে বলেন, তাদের নারায়ণগঞ্জ ডিবিতে হস্তান্তর করা হয়েছে। মামলাটি ডিবি তদন্ত করবেন।

আরও দেখুন

সম্পৃক্ত

Back to top button